৭ অক্টোবর থেকে ২২ দিনের জন্য বন্ধ হচ্ছে ইলিশ ধরা

আজ ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত মোট ২২ দিনের জন্য বন্ধ থাকবে দেশের ৩৭ জেলার ৭ হাজার কিলোমিটার নদীতে মাছ ধরা। এই ২২ দিন ইলিশ মাছ ধরা, বিক্রি করা, বাজারজাত করা, মজুত রাখাসহ সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। ইলিশের মা মাছ রক্ষা এবং ডিম ছাড়ার সুযোগ দিতেই প্রতিবছর এই সময়ে ইলিশ ধরা বন্ধ রাখা হয়। 

প্রজননক্ষেত্রে সাত হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় আগামী ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে। তবে এর বাইরের অন্যান্য পুকুর-বিল বা হাওর-বাঁওড় ও জলাশয় মাছ ধরার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। এ ২২ দিন ইলিশ ধরা থেকে বিরত রাখতে জেলেদের মধ্যে ভিজিএফের চাল বিরতণ করবে সরকার। এ নিষেধাজ্ঞা না মানলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে। অভিযুক্তকে কারাদণ্ড কিংবা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হতে পারে। দেশের সব মাছঘাট, আড়ত, হাটবাজার, চেইনশপসহ সংশ্লিষ্ট এলাকায় এই ২২ দিন ভ্রাম্যমাণ আদালতসহ অভিযানও চালানো হবে।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইন্সটিটিউটের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো: আনিসুর রহমান জানিয়েছে, ইলিশ মাছ ধরা বন্ধ রাখার কারণে চলতি বছরে ৪২ হাজার কোটি ডিম দেবার সম্ভাবনা আছে। অর্থাৎ ৪২ হাজার কোটি জাটকা ইলিশ হবে বলে তারা আশা করছেন।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, একটি মা-ইলিশের পেটে থাকা দুই ফালি ডিমের ছড়ায় থেকে সর্বনিম্ন দেড় লাখ এবং সর্বোচ্চ ২৩ লাখ পর্যন্ত ডিম থাকে। মা ইলিশ পানিতে ডিম ছাড়ার পর এর ৬০ শতাংশ বা তারও বেশি থেকে পোনা উৎপাদন হয়ে থাকে। তবে ডিম থেকে পোনা উৎপাদনের পরিমাণ মূলত নির্ভর করে পানির গভীরতা ও উষ্ণতা,স্রোতের তীব্রতা,চাঁদের অবস্থান, আবহাওয়া ইত্যাদি নানা কিছুর ওপর।