আফগানিস্তানে আই-এস আত্মঘা-তী সদস্য হিসেবে শিশুদের ব্যবহার

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে এক শিশুকে ব্যবহার করে ঘটানো আত্মঘা-তী হাম-লায় অন্তত ৯ জন নিহত ও ১২ জন আহত হয়েছেন। খবর বিবিসির।

স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালে দেশটির নানগরহার প্রদেশের পাচিরাগাম এলাকায় এ হাম-লা চালানো হয়।

প্রদেশটির মুখপাত্র আতাউল্লাহ খুগানি জানান, শুক্রবার সকালের হাম-লায় সরকার সমর্থিত সেনাবাহিনীর অধিনায়ককে হ-ত্যা করতেই ওই শিশুটিকে ব্যবহার করেছে জ-ঙ্গিরা।

এ হাম-লার দায় স্বীকার করেছে জ-ঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটস (আই-এস)। আই-এস আফগানিস্তানে আই-এস খোরাসান নামে পরিচিত। পাচিরাগাম এলাকায় সংগঠনটি বেশ সক্রিয়।

এর আগেও দেশটিতে অসংখ্য প্রাণঘা-তী হাম-লা চালিয়েছে আই-এস। গত বছর কাবুলের এক শিক্ষাকেন্দ্রে আত্মঘা-তী বোম হাম-লায় কয়েক ডজন মানুষ নিহত হন।

বার্তা সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, গতকালের হাম-লায় একটি শিশুকে ব্যবহার করা হয়। এই হাম-লার প্রধান লক্ষ্যই ছিল সরকারপন্থী সেনাবাহিনীর অধিনায়ক মালিক নূরকে হ-ত্যা করা। হাম-লায় তার ২ ছেলে নিহত হয়েছেন।

তালেবান ও আফগান প্রতিনিধির মধ্যে গত বৃহস্পতিবার শান্তি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সাধারণ নাগরিকদের ক্ষয়ক্ষ-তির পরিমাণ কমানোর অঙ্গীকার করে তালেবানরা। ভবিষ্যতে এ ধরনের আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার জন্য দুই পক্ষই ‘শান্তির রোডম্যাপ’ তৈরিতে সম্মত হয়। বৈঠকের পরদিনই এই হাম-লা চালাল আই-এস।

১৮ বছরের যু-দ্ধ শেষ করার জন্য তালেবান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমঝোতা করার চেষ্টা করছে। মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করে নিয়ে আফগানিস্তানকে আর সন্ত্রা-সবাদের ভিত্তি হিসেবে ব্যবহার না করা হয় এমন প্রতিশ্রুতির জন্য একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর আশা করা হচ্ছে।

আত্মঘা-তী হাম-লায় শিশু ব্যবহারের ঘটনা এটিই প্রথম নয়। এ বছরের শুরুর দিকে নাইজেরিয়ার বর্নো প্রদেশে ২ মেয়ে এবং ১ ছেলেকে এ ধরনের হাম-লায় ব্যবহার করা হয়।

গত বছর ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়া গির্জায় হাম-লাকারীদের মধ্যে ৯ এবং ১২ বছর বয়সী ২ মেয়ে ছিল।