ফাইনালে চলছে ধর্মসেনা ও ইরাসমাসদের ভুল আম্পায়ারিং

কুমার ধর্মসেনা সেমিফাইনালে বাজে সিদ্ধান্ত দিয়ে আলোচনায় এসেছেন। তবু ফাইনালে থাকা ধর্মসেনা আজও সে ধারা অব্যাহত রেখেছেন। তাঁর সঙ্গে যোগ দিয়েছেন ম্যারাইস ইরাসমাসও। ফাইনালের প্রথম ইনিংসে তিনটি ভুল সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তাঁরা

বিশ্বকাপে আম্পায়ারিং যাতে বিতর্কের ঊর্ধ্বে থাকে, সে জন্য কত প্রচেষ্টাই না করল আইসিসি। শুধু এলিট প্যানেলের আম্পায়ারদের বিশ্বকাপে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমকে (ডিআরএস) আরও পরিশীলিত করতে স্নিকোমিটার, আলট্রা এজ, হক আইসহ বিভিন্ন প্রযুক্তি যোগ হয়েছে। আম্পায়ারদের সুবিধার জন্য জিং বেল প্রযুক্তিও যোগ করা হয়েছে। কিন্তু তাতে কাজ হলো কই! বিশ্বকাপ ফাইনালেই যে ভুলে ভরা আম্পায়ারিং হলো আজ।

বিশ্বকাপজুড়েই আম্পায়ারদের ভুল সিদ্ধান্ত ছিল আলোচনার কেন্দ্র। বিতর্কিত সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে আম্পায়ারদের সঙ্গে খেলোয়াড়দের মাঠে বাগ্‌বিতণ্ডার দৃশ্যও ছিল নিয়মিত। ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার সেমিফাইনালে আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনার দেওয়া ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে জেসন রয়ের প্রতিবাদ ছিল চোখে পড়ার মতো।

বিতর্কের পরও সেমিফাইনালে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে দায়িত্বপ্রাপ্ত দুই আম্পায়ারের হাতেই ফাইনালের দায়িত্ব তুলে দিয়েছে আইসিসি। সেই ম্যাচের ভুল সিদ্ধান্তগুলো শুধরে নিয়ে ফাইনালে ভালো আম্পায়ারিং উপহার দেবেন, এমনটাই হয়তো আশা ছিল আইসিসির। সেই আশায় গুড়েবালি। ম্যাচের তৃতীয় ওভারেই ভুল সিদ্ধান্ত দিয়েছেন কুমার ধর্মসেনা। ক্রিস ওকসের বলে ভেতরের দিকে আসতে বলটি ব্যাট দিয়ে ঠেকাতে ব্যর্থ হন নিকোলস, বোলার ওকস আবেদন করলেন, আম্পায়ার ধর্মসেনা আঙুল উঁচিয়ে আউটের ইঙ্গিত দিলেন।

নিকোলস রিভিউ নেওয়ার পর দেখা গেল, বল উইকেটের অনেক ওপর দিয়ে চলে যাচ্ছে। তৃতীয় আম্পায়ার রড টাকার ধর্মসেনার সিদ্ধান্ত বদলে দেন।

নিকোলস রিভিউ নিয়ে বেঁচে গেলেও রস টেলরের সেই ভাগ্য ছিল না। সতীর্থ গাপটিল আগেই রিভিউ খোয়ানোর ফলে আম্পায়ার ইরাসমাসের দেওয়া আউটের ভুলকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেননি। ৩৩তম ওভারের প্রথম বলে মার্ক উডের বল ঠিকভাবে খেলতে পারেননি টেলর। বল প্যাডে লাগলেও খালি চোখেই মনে হচ্ছিল, বল স্টাম্পের অনেক ওপর দিয়ে যাবে। কিন্তু আম্পায়ার ইরাসমাস কী দেখলেন, কে জানে! সোজা তর্জনী উঁচিয়ে জানিয়ে দিলেন আউটের সিদ্ধান্ত। পরে রিপ্লেতে দেখা গেল বলটি লেগ স্টাম্পের অনেক ওপর দিয়ে চলে যেত।

এই দুই ভুল আউটের মাঝে ২২তম ওভারে ধর্মসেনা আরেকটি ভুল সিদ্ধান্ত দিয়েছিলেন। লিয়াম প্লাংকেটের গুড লেংথে পড়ে বাঁক খেয়ে বেরিয়ে যাওয়ার পথে কেন উইলিয়ামসনের ব্যাটের ছোঁয়া পেয়ে উইকেটরক্ষক বাটলারের হাতে ঠাঁই পায় বল। কিন্তু সেটি ধর্মসেনার নজর এড়িয়ে যায়। পরে রিভিউ নিয়ে উইলিয়ামসনের গুরুত্বপূর্ণ উইকেটটি বুঝে নিয়েছে ইংল্যান্ড।